Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

সিটিজেন চার্টার

(খতিয়ান ও ম্যাপ প্রস্ত্তত সংক্রামত্ম)

  জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস,বগুড়া এবং জয়পুরহাট জেলায় মাঠ পর্যায়ে জরিপ সংক্রামত্ম আইনের বিধান অনুসরণ পূর্বক মাঠ জরিপের মাধ্যমে প্রতিটি ভূমি খন্ডের স্বত্বলিপি (খতিয়ান/নক্সা) প্রনয়ন করে। একজন  জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার ২ জন চার্জ অফিসার ১ জন সদর সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার ১ জন কারিগরী উপদেষ্টা     কর্মকর্তা ও কর্মচারী এই দপ্তরে কর্মরত আছেন।

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের কার্যাবলীঃ

#  খতিয়ান ভূমি মালিকের Record of Rights বা স্বত্বলিপি (খতিয়ান প্রনয়ণ এবং মৌজা ম্যাপ প্রস্ত্তত) সংশোধণের লক্ষ্যেভূমি রেকর্ড ও জরিপ পরিচালনা করণ।

#  পর্যায়ক্রমে প্রতিটি ভূমি খন্ডের (Plot)রেকড র্(RoR) প্রণয়ন (খতিয়ান প্রনয়ণ এবং মৌজা ম্যাপ প্রস্ত্ততও মুদ্রন)।

#জোনের প্রতিটি মৌজা, থানা/উপজেলা এবং জেলা   ম্যাপ প্রন্তুত ও মুদ্রণ।

# আন্ত: উপজেলা এবং আমত্মঃ জেলা সীমানা চিহ্ণিতকরণ এবং বাসত্মবায়নে জেলা প্রশাসনকে কারিগরী সহায়তা প্রদান।

 

১৯৫০ সালের রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইনের অধীন প্রণীত প্রজাস্বত্ব বিধিমালা ১৯৫৫ এর বিধান অনুসারে ভূমি রেকর্ড ও জরিপের কাজ সমুহ স্তর ভিত্তিক সম্পাদিত হয়ে থাকে। রেকর্ড প্রণয়ন ও নক্সা প্রস্ত্তত কাজে নিয়োজিত কর্মচারীর সাথে সংশ্লিস্ষ্ট ক্যাম্প অফিসে অথবা উপজেলায় অবস্থিত সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসারের কার্যালয়ে সরাসরি যোগাযোগ করে ভূমি মালিকগণ কাঙ্খিত সেবা গ্রহণ করতে পারেন। নিন্মবর্ণিত কর্মকর্তা/ কর্মচারীগণ জরিপের স্তর সমুহে যথা নিয়মে সেবা প্রদানে নিয়োজিত রয়েছেন।

সত্মরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

বিজ্ঞপ্তি প্রচার

জরিপ শুরুর পূর্বে মাইকিং ও পত্রিকায় বিজ্ঞাপনসহ ব্যাপক জনসংযোগ করা হয়। এ সময় ভূমি মাণিকগণকে নিজ নিজ জমির আইল/সীমানা চিহ্ণিত করে রাখতে হবে।

 সেটেলমেন্ট অফিসার/

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

ট্রার্ভাস

 কোন মৌজার নক্সা সম্পূর্ণ নতুন করে প্রস্ত্তত করতে যে কাঠামো স্থাপণ করা হয় সেটাই ট্রার্ভাস। অতঃপর পি-৭০ সীটের মাধ্যমে মৌজার নক্সা প্রস্ত্তত করা হয়। বস্নু-প্রিন্ট সীটের উপর জরিপ করার ক্ষেত্রে ট্রার্ভাস করা হয় না।

ট্রার্ভাস ক্যাম্প কর্মকর্তা/

ট্রার্ভাস সার্ভেয়ার

 

স্তরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

কিস্তোয়ার

এই স্তরে আমিনদল প্রতি খন্ড জমি পরিমাপ করে মৌজার নক্সা অঙ্কনের মাধ্যমে কিস্তোয়ার অথবা ব্লু-প্রিন্টের পুরোনো নক্সা সংশোধন করেন।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

খানাপুরী

কিস্তোয়ার স্তরে অঙ্কিত নক্সার প্রত্যেকটি দাগের জমিতে উপস্থিত হয়ে আমিনদল জমির দাগ নম্বর প্রদান করেন এবং মালিকের রেকর্ড, দলিল পত্র ও দখল যাচাঁই করে মালিকের নাম, ঠিকানা ও অন্যান্য তথ্য খতিয়ানে লিপিবদ্ধ (খানাপুরী) করেন। এ স্তরের ভূমি মালিকদের কাজ হচ্ছে আমিন দলকে জমির মালিকানা , দখল সংক্রান্ত প্রমাণাদি উপস্থাপন করা।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

বুঝারত

বুঝারত অর্থ জমি বুঝিয়ে দেওয়া। এ স্তরের আমিনদল কর্তৃক খতিয়ান বা পর্চা জমির মালিকেকে সরবরাহ (বুঝারত) করা হয়, যা মাঠ পর্চা নামে পরিচিত। পর্চা বিতরণের তারিখ নোটিশ/ পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রচার/এলাকায় মাইকিং এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হয়। ভূমি মালিকগণ প্রাপ্ত পর্চার সঠিকতা যাচাই করে কোনরুপ সংশোধন বা পরিবর্তন আবশ্যক হলে বিবাদ (Dispute) ফরম পূরণ করে তা আমিনের নিকট জমা দিবেন। হল্কা অফিসার সংশ্লিষ্ট পক্ষগণের শুনানীর মাধ্যমে দ্রম্নত ঐ সকল বিবাদ নিষ্পত্তি করবেন।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

 

স্তরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

খানাপুরী- কাম বুঝারত

যখন কোন মৌজা ব্লু- প্রিন্ট সীটে জরিপ করা হয় তখন উপরে বর্ণিত খানাপুরী ও বুঝারত স্তরের কাজ একসাথে করা হয়।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

তসদিক বা এ্যাটেষ্টশন

ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে তসদিক স্তরের কাজ সম্পাদিত হয় ক্যাম্প অফিসে। তসদিক সত্মরের কাজ সম্পাদন করেন একজন কানুনগো বা রাজস্ব অফিসার। জমির মালিকানা সংক্রান্ত সকল কাগজপত্র ও প্রমানাদি যাঁচাই করে প্রতিটি বুঝারত খতিয়ান সত্যায়ন করা হয়। এ  ও ভূমি মালিকগণ পর্চা ও নক্সায় কোন সংশোধন প্রয়োজন মনে করলে বিবাদ (Dispute)  দাখিল করতে পারেন এবং উপর্যুক্ত প্রমান উপস্থাপন করে তা সংশোধনের সুযোগ নিতে পারেন। তসদিককৃত পর্চা জমির মালিকানার প্রাথমিক অইনগত ভিত্তি (Legal Document) হিসাবে বিবেচিত হয়। তাই এই স্তরের কাজটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ৤

তসদিক অফিসার/উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

খসড়া প্রকাশনা

(ডিপি) ও আপত্তি দায়ের

তসদিকের পরে জমির প্রণীত রেকর্ড সর্বসাধারণের প্রদর্শনের জন্য ৩০ দিন উম্মুক্ত রাখা হয়। এর সময় কাল উলেস্নখ পূর্বক ক্যাম্প অফিস হতে বিজ্ঞপ্তি ও প্রচার করা হয়। ভূমি মালিকগণের নামের আদ্যাক্ষরে অনুযায়ী খতিয়ান বা পর্চা বর্ণানুক্রমিক ক্রমবিন্যাস করে খতিয়ানে নতুন নম্বর দেওয়া হয়। তাই তসদিক খতিয়ানের নতুন নম্বর অর্থাৎ ডিপি নম্বরটি সংগ্রহের জন্য ও ভূমি মালিকগণকে নিজ নিজ পর্চাসহ খসড়া প্রকাশনা (ডিপি) ক্যাম্পে উপস্থিত হতে হয়। ডিপিতে প্রকাশিত খতিয়ান সম্পর্কে কারো কোন আপত্তি বা দাবী থাকলে সরকার নির্ধারিত ২০.০০ টাকার কোর্ট ফি দিয়ে নির্দিষ্ট ফরম পূরনের মাধ্যমে প্রজাস্বত্ব বিধিমালার ৩০ বিধি অনুযায়ী আপত্তি দায়ের করা যাবে।

তসদিক অফিসার/খসড়া প্রকাশনা অফিসার(উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 

 

 

 

 

 

 

স্তরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

আপত্তি শুনানী 

ডিপি চলাকালে গৃহীত আপত্তি মামলাসমুহ সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে নোটিশ মারফত জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শুনানী গ্রহন করে নিস্পত্তি করা হয়। পক্ষগণ নিজে অথবা প্রয়োজনে মনোনিত প্রতিনিধির মাধ্যমে নিজ নিজ দাবী আপত্তি অফিসারের নিকট উপস্থাপন করতে পারেন। আপত্তি অফিসার পক্ষগণকে শুনানী দিয়ে, রায় কেস নথিতে লিপিবদ্ধ করে তার সিদ্ধান্ত জানাবেন এবং খতিয়ান বা রেকর্ডে প্রয়োজীয় সংশোধন করবেন।

সংশিস্নষ্ট আপত্তি অফিসার/সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার,উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিসার

আপীল শুনানী

আপত্তির রায়ে সংক্ষুদ্ধ পক্ষ ৩০ দিনের মধ্যে ৩১ বিধিতে আপীল দায়ের করতে পারেন। নির্ধারিত কোর্ট ফি এবং কার্টিজ পেপারসহ সেটেলমেন্ট অফিসার বরাবর আবেদন দাখিলের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আপত্তি মামলার রায়ের নকল গ্রহণ করতে হবে। নির্দিষ্ট ফরম পূরণের মাধ্যমে রায়ের ঐ নকলসহ আপীল দায়ের করতে হবে। সংশিস্নষ্ট পক্ষগণকে নোটিশ মারফত জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শুনানী গ্রহণ করে আপীল নিস্পত্তি করা হয়।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার/চার্জ অফিসার/ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

 মৌজা সীমানা নিয়ে বিরোধ

 জরিপ চলাকালীন কোন মৌজা / উপজেলা সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ দেখা দিলে সেটেলমেন্ট অফিসার খানাপুরী কাম বুঝারত স্তরে উক্ত বিরোধ বিধি মতে নিস্পত্তি করবেন। আন্ত:জেলা সীমানা বিরোধ মহাপরিচালক, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকগণের সমস্বয়ে নিস্পত্তি করবেন।

কারিগরী উপদেষ্টা/ সেটেলমেন্ট অফিসার/পরিচালক (সার্ভে)

 

স্তরের নাম

 সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

৪২(ক) ও ৪২ (খ) বিধি

আপত্তি রায় প্রদানের তারিখ থেকে (আপত্তির নকল সরবরাহের সময় বাদ দিয়ে) ৩০দিনের মধ্যে আপীল দায়ের না করলে তামাদির কারণে আপীল অগ্রহণযোগ্য হবে। আপীল স্তরের পরে প্রণীত রেকর্ড বিষয়ে কেবল মাত্র তঞ্চকতা ও করণিক ভূলের অভিযোগে সেটেলমেন্ট অফিসারের নিকট প্রতিকার চাওয়া যায়।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার/চার্জ অফিসার/ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

চুড়ান্ত প্রকাশনা

উপরোক্ত স্তর সমুহের কাজ সমাপ্তির পর  আনুসঙ্গিক কার্যাদি সম্পুর্ণ করে পর্চা ও নক্সা মুদ্রণ করা হয়। মুদ্রিত নক্সা ও পর্চা নোটিশ/পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে চুড়ান্ত প্রকাশনা দেয়া হয়। চুড়ান্ত প্রকাশনার জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলায় একটি ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। চুড়ান্ত প্রকাশনার সময় কাল ৩০ কর্মদিবস। এ স্তরে ভূমি মালিকগণ মুদ্রিত নক্সা ও পর্চা সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে ক্রয় করতে পারেন।

উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিস

 

বিভন্ন প্রকারের ম্যাপ ও খতিয়ানের বিক্রয়মূল্য নিমণরম্নপঃ

ক্রমিক নং

আইটেমের নাম

নির্ধারিত মূল্য

মৌজা ম্যাপ (মুদ্রিত)

৫০০/-

খতিয়ান মুদ্রিত

১০০/-

 

 

জাবেদা নকলের কোর্ট ফি ও ফলিও মূল্য

 

বিষয়

কোর্ট ফি

 

 

 

 

 

 

(ক) আবেদন পত্র

২০.০০ টাকা

(খ) নকল (শব্দ)

 

* ১ হতে ৩৬০

২.৫০

* ৩৬১ হতে ৭২০

৫.০০

* ৭২১ হতে ১০৮১

৭.৫০

* ১০৮২ হতে ১৪৪০

১০.০০

* ১৪৪১ হতে ১৮০০

১২.৫০

* ১৮০১ হতে ২১৬০

১৫.০০

* ২১৬১ হতে ২৫২০

১৭.৫০

* ২৫২১ হতে ২৮৮০

২০.০০

স্তরের নাম

 সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল ও আপীলেট ট্রাইব্যুনাল

 মৌজা রেকর্ড চুড়ান্ত প্রকাশনা সংক্রান্ত গেজেট বিজ্ঞত্তি প্রকাশের ১ বছরের মধ্যে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল / দেওয়ানী আদালতের প্রতিকার প্রার্থনা করা যাবে। ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইবুনালে প্রতিকার না পেলে মহামান্য হাইকোর্টে আপীল করতে পারেন।

 

         

 

জরুরী জ্ঞাতব্যঃ

০ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের  রেকর্ড ও নক্সা প্রনয়নের কাজ সম্পূর্ণ সত্মরভিত্তিক।

০নির্ভূল  রেকর্ড প্রনয়নের স্বার্থে বিভন্ন স্তরে পৃথক কর্মকর্তা/ কর্মচারী নিয়োজিত থাকেন।

০মাঠ পর্চা সরকারী ভাবে বুঝারত-কাম-তসদিক স্তরে বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়। বিবাদ, আপত্তি ও আপীলের রায়ে রেকর্ড সংশোধন হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা নিজ স্বাক্ষরে সংশোধিত পর্চা বিনামুল্যে সরবরাহ করবেন।

০উপজেলা/ সেটেলমেন্ট অফিসের রেকর্ড রুম থেকে আপত্তি ও আপীলের রায়ের জাবেদা নকল পর্চার কপি সরবরাহ করা হয়।

০জরিপ চলাকালীন বদর ফি, খতিয়ান ও নক্সার মূল্য ডিসি আর এর মাধ্যমে গ্রহণ করা হয়। ডিসিআর বহির্ভূত সকল লেনদেন নিষিদ্ধ এবং সুনিশ্চিত দূর্নীতির পর্যায়ভূক্ত। এরুপ অবৈধ লেনদেনের ক্ষেত্রে তাৎক্ষনিকভাবে কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

০জরিপ কার্যক্রম বিষয়ে কোন অভিযোগ থাকলে নিন্মবর্ণিত ক্রমানুযায়ী অভিযোগ করা যাবে।

 

 

যে কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ

যার কাছে অভিযোগ করতে হবে

সংশ্লিষ্ট উপজেলা অফিসের কর্মচারী

সংশ্লিষ্ট সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের কর্মচারী

সদর সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার, জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

উপরে বর্ণিত হয়নি সব কর্মকর্তা

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

 

 

 

সেটেলমেন্ট অফিস/ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসে

নিন্মলিখিত ঠিকানা ও ফোন নম্বরে যোগাযোগ করা যাবেঃ

অফিসের নাম

অফিসের অবস্থান

জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসারের ও সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসারের ফোন নং / মোবাইল নং

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস

বগুড়া

মালতিনগর, বক্সিবাজার মোড়

০৫১-৭৮৭০০

 সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস,বগুড়া সদর,বগুড়া

মালতিনগর, মাটির মসজিদ

 ০১৭১৮-৮৪০৩৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

গাবতলী, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১১-১৯৩২১৪

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

 সোনাতলা, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮৮৪০৩৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

শিবগঞ্জ, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮৮৪০৩৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

সারিয়াকান্দি, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১২-৮৩৯৭৫১

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

 কাহালু, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১০-৮৭০৯০২

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

দুপচাঁচিয়া, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১২-৯০৯৪৭৮

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

আদমদীঘি, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭২০-৬১৯৩৬৫

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

নন্দীগ্রাম, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

০১৭১৮-১৩৮৮৫৫

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস শেরপুর, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১১-০০২৯১৮

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

ধুনট, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮-১৩৮৮৫৫

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

জয়পুরহাট সদর, জয়পুরহাট

 

 ০১৭১৭৭২০৮৮৮

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

ক্ষেতলাল, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১২-৫০৬০৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

পাঁচবিবি, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮-৮২৫৯৫৭

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

কালাই, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

০১৭২৬-৭২৬৮৮০

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

আক্কেলপুর, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

০১৭৩১-৮৪৬২৬৫

সিটিজেন চার্টার

(খতিয়ান ও ম্যাপ প্রস্ত্তত সংক্রামত্ম)

  জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস,বগুড়া এবং জয়পুরহাট জেলায় মাঠ পর্যায়ে জরিপ সংক্রামত্ম আইনের বিধান অনুসরণ পূর্বক মাঠ জরিপের মাধ্যমে প্রতিটি ভূমি খন্ডের স্বত্বলিপি (খতিয়ান/নক্সা) প্রনয়ন করে। একজন  জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার ২ জন চার্জ অফিসার ১ জন সদর সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার ১ জন কারিগরী উপদেষ্টা     কর্মকর্তা ও কর্মচারী এই দপ্তরে কর্মরত আছেন।

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের কার্যাবলীঃ

#  খতিয়ান ভূমি মালিকের Record of Rights বা স্বত্বলিপি (খতিয়ান প্রনয়ণ এবং মৌজা ম্যাপ প্রস্ত্তত) সংশোধণের লক্ষ্যেভূমি রেকর্ড ও জরিপ পরিচালনা করণ।

#  পর্যায়ক্রমে প্রতিটি ভূমি খন্ডের (Plot)রেকড র্(RoR) প্রণয়ন (খতিয়ান প্রনয়ণ এবং মৌজা ম্যাপ প্রস্ত্ততও মুদ্রন)।

#জোনের প্রতিটি মৌজা, থানা/উপজেলা এবং জেলা   ম্যাপ প্রন্তুত ও মুদ্রণ।

# আন্ত: উপজেলা এবং আমত্মঃ জেলা সীমানা চিহ্ণিতকরণ এবং বাসত্মবায়নে জেলা প্রশাসনকে কারিগরী সহায়তা প্রদান।

 

১৯৫০ সালের রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইনের অধীন প্রণীত প্রজাস্বত্ব বিধিমালা ১৯৫৫ এর বিধান অনুসারে ভূমি রেকর্ড ও জরিপের কাজ সমুহ স্তর ভিত্তিক সম্পাদিত হয়ে থাকে। রেকর্ড প্রণয়ন ও নক্সা প্রস্ত্তত কাজে নিয়োজিত কর্মচারীর সাথে সংশ্লিস্ষ্ট ক্যাম্প অফিসে অথবা উপজেলায় অবস্থিত সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসারের কার্যালয়ে সরাসরি যোগাযোগ করে ভূমি মালিকগণ কাঙ্খিত সেবা গ্রহণ করতে পারেন। নিন্মবর্ণিত কর্মকর্তা/ কর্মচারীগণ জরিপের স্তর সমুহে যথা নিয়মে সেবা প্রদানে নিয়োজিত রয়েছেন।

সত্মরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

বিজ্ঞপ্তি প্রচার

জরিপ শুরুর পূর্বে মাইকিং ও পত্রিকায় বিজ্ঞাপনসহ ব্যাপক জনসংযোগ করা হয়। এ সময় ভূমি মাণিকগণকে নিজ নিজ জমির আইল/সীমানা চিহ্ণিত করে রাখতে হবে।

 সেটেলমেন্ট অফিসার/

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

ট্রার্ভাস

 কোন মৌজার নক্সা সম্পূর্ণ নতুন করে প্রস্ত্তত করতে যে কাঠামো স্থাপণ করা হয় সেটাই ট্রার্ভাস। অতঃপর পি-৭০ সীটের মাধ্যমে মৌজার নক্সা প্রস্ত্তত করা হয়। বস্নু-প্রিন্ট সীটের উপর জরিপ করার ক্ষেত্রে ট্রার্ভাস করা হয় না।

ট্রার্ভাস ক্যাম্প কর্মকর্তা/

ট্রার্ভাস সার্ভেয়ার

 

স্তরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

কিস্তোয়ার

এই স্তরে আমিনদল প্রতি খন্ড জমি পরিমাপ করে মৌজার নক্সা অঙ্কনের মাধ্যমে কিস্তোয়ার অথবা ব্লু-প্রিন্টের পুরোনো নক্সা সংশোধন করেন।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

খানাপুরী

কিস্তোয়ার স্তরে অঙ্কিত নক্সার প্রত্যেকটি দাগের জমিতে উপস্থিত হয়ে আমিনদল জমির দাগ নম্বর প্রদান করেন এবং মালিকের রেকর্ড, দলিল পত্র ও দখল যাচাঁই করে মালিকের নাম, ঠিকানা ও অন্যান্য তথ্য খতিয়ানে লিপিবদ্ধ (খানাপুরী) করেন। এ স্তরের ভূমি মালিকদের কাজ হচ্ছে আমিন দলকে জমির মালিকানা , দখল সংক্রান্ত প্রমাণাদি উপস্থাপন করা।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

বুঝারত

বুঝারত অর্থ জমি বুঝিয়ে দেওয়া। এ স্তরের আমিনদল কর্তৃক খতিয়ান বা পর্চা জমির মালিকেকে সরবরাহ (বুঝারত) করা হয়, যা মাঠ পর্চা নামে পরিচিত। পর্চা বিতরণের তারিখ নোটিশ/ পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রচার/এলাকায় মাইকিং এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হয়। ভূমি মালিকগণ প্রাপ্ত পর্চার সঠিকতা যাচাই করে কোনরুপ সংশোধন বা পরিবর্তন আবশ্যক হলে বিবাদ (Dispute) ফরম পূরণ করে তা আমিনের নিকট জমা দিবেন। হল্কা অফিসার সংশ্লিষ্ট পক্ষগণের শুনানীর মাধ্যমে দ্রম্নত ঐ সকল বিবাদ নিষ্পত্তি করবেন।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

 

স্তরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

খানাপুরী- কাম বুঝারত

যখন কোন মৌজা ব্লু- প্রিন্ট সীটে জরিপ করা হয় তখন উপরে বর্ণিত খানাপুরী ও বুঝারত স্তরের কাজ একসাথে করা হয়।

সরদার আমিন/হল্কা অফিসার বা কানুনগো/ক্যাডাষ্ট্রাল সার্কেল অফিসার।

তসদিক বা এ্যাটেষ্টশন

ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে তসদিক স্তরের কাজ সম্পাদিত হয় ক্যাম্প অফিসে। তসদিক সত্মরের কাজ সম্পাদন করেন একজন কানুনগো বা রাজস্ব অফিসার। জমির মালিকানা সংক্রান্ত সকল কাগজপত্র ও প্রমানাদি যাঁচাই করে প্রতিটি বুঝারত খতিয়ান সত্যায়ন করা হয়। এ  ও ভূমি মালিকগণ পর্চা ও নক্সায় কোন সংশোধন প্রয়োজন মনে করলে বিবাদ (Dispute)  দাখিল করতে পারেন এবং উপর্যুক্ত প্রমান উপস্থাপন করে তা সংশোধনের সুযোগ নিতে পারেন। তসদিককৃত পর্চা জমির মালিকানার প্রাথমিক অইনগত ভিত্তি (Legal Document) হিসাবে বিবেচিত হয়। তাই এই স্তরের কাজটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ৤

তসদিক অফিসার/উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

খসড়া প্রকাশনা

(ডিপি) ও আপত্তি দায়ের

তসদিকের পরে জমির প্রণীত রেকর্ড সর্বসাধারণের প্রদর্শনের জন্য ৩০ দিন উম্মুক্ত রাখা হয়। এর সময় কাল উলেস্নখ পূর্বক ক্যাম্প অফিস হতে বিজ্ঞপ্তি ও প্রচার করা হয়। ভূমি মালিকগণের নামের আদ্যাক্ষরে অনুযায়ী খতিয়ান বা পর্চা বর্ণানুক্রমিক ক্রমবিন্যাস করে খতিয়ানে নতুন নম্বর দেওয়া হয়। তাই তসদিক খতিয়ানের নতুন নম্বর অর্থাৎ ডিপি নম্বরটি সংগ্রহের জন্য ও ভূমি মালিকগণকে নিজ নিজ পর্চাসহ খসড়া প্রকাশনা (ডিপি) ক্যাম্পে উপস্থিত হতে হয়। ডিপিতে প্রকাশিত খতিয়ান সম্পর্কে কারো কোন আপত্তি বা দাবী থাকলে সরকার নির্ধারিত ১০.০০ টাকার কোর্ট ফি দিয়ে নির্দিষ্ট ফরম পূরনের মাধ্যমে প্রজাস্বত্ব বিধিমালার ৩০ বিধি অনুযায়ী আপত্তি দায়ের করা যাবে।

তসদিক অফিসার/খসড়া প্রকাশনা অফিসার(উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 

 

 

 

 

 

 

স্তরের নাম

সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

আপত্তি শুনানী 

ডিপি চলাকালে গৃহীত আপত্তি মামলাসমুহ সংশ্লিষ্ট পক্ষগনকে নোটিশ মারফত জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শুনানী গ্রহন করে নিস্পত্তি করা হয়। পক্ষগণ নিজে অথবা প্রয়োজনে মনোনিত প্রতিনিধির মাধ্যমে নিজ নিজ দাবী আপত্তি অফিসারের নিকট উপস্থাপন করতে পারেন। আপত্তি অফিসার পক্ষগণকে শুনানী দিয়ে, রায় কেস নথিতে লিপিবদ্ধ করে তার সিদ্ধান্ত জানাবেন এবং খতিয়ান বা রেকর্ডে প্রয়োজীয় সংশোধন করবেন।

সংশিস্নষ্ট আপত্তি অফিসার/সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার,উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিসার

আপীল শুনানী

আপত্তির রায়ে সংক্ষুদ্ধ পক্ষ ৩০ দিনের মধ্যে ৩১ বিধিতে আপীল দায়ের করতে পারেন। নির্ধারিত কোর্ট ফি এবং কার্টিজ পেপারসহ সেটেলমেন্ট অফিসার বরাবর আবেদন দাখিলের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আপত্তি মামলার রায়ের নকল গ্রহণ করতে হবে। নির্দিষ্ট ফরম পূরণের মাধ্যমে রায়ের ঐ নকলসহ আপীল দায়ের করতে হবে। সংশিস্নষ্ট পক্ষগণকে নোটিশ মারফত জ্ঞাত করে নির্দিষ্ট তারিখ, সময় ও স্থানে শুনানী গ্রহণ করে আপীল নিস্পত্তি করা হয়।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার/চার্জ অফিসার/ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

 মৌজা সীমানা নিয়ে বিরোধ

 জরিপ চলাকালীন কোন মৌজা / উপজেলা সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ দেখা দিলে সেটেলমেন্ট অফিসার খানাপুরী কাম বুঝারত স্তরে উক্ত বিরোধ বিধি মতে নিস্পত্তি করবেন। আন্ত:জেলা সীমানা বিরোধ মহাপরিচালক, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকগণের সমস্বয়ে নিস্পত্তি করবেন।

কারিগরী উপদেষ্টা/ সেটেলমেন্ট অফিসার/পরিচালক (সার্ভে)

 

স্তরের নাম

 সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

৪২(ক) ও ৪২ (খ) বিধি

আপত্তি রায় প্রদানের তারিখ থেকে (আপত্তির নকল সরবরাহের সময় বাদ দিয়ে) ৩০দিনের মধ্যে আপীল দায়ের না করলে তামাদির কারণে আপীল অগ্রহণযোগ্য হবে। আপীল স্তরের পরে প্রণীত রেকর্ড বিষয়ে কেবল মাত্র তঞ্চকতা ও করণিক ভূলের অভিযোগে সেটেলমেন্ট অফিসারের নিকট প্রতিকার চাওয়া যায়।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার/চার্জ অফিসার/ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

চুড়ান্ত প্রকাশনা

উপরোক্ত স্তর সমুহের কাজ সমাপ্তির পর  আনুসঙ্গিক কার্যাদি সম্পুর্ণ করে পর্চা ও নক্সা মুদ্রণ করা হয়। মুদ্রিত নক্সা ও পর্চা নোটিশ/পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে চুড়ান্ত প্রকাশনা দেয়া হয়। চুড়ান্ত প্রকাশনার জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলায় একটি ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। চুড়ান্ত প্রকাশনার সময় কাল ৩০ কর্মদিবস। এ স্তরে ভূমি মালিকগণ মুদ্রিত নক্সা ও পর্চা সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে ক্রয় করতে পারেন।

উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিস

 

বিভন্ন প্রকারের ম্যাপ ও খতিয়ানের বিক্রয়মূল্য নিমণরম্নপঃ

ক্রমিক নং

আইটেমের নাম

নির্ধারিত মূল্য

মৌজা ম্যাপ (মুদ্রিত)

৫০০/-

খতিয়ান মুদ্রিত

১০০/-

 

 

জাবেদা নকলের কোর্ট ফি ও ফলিও মূল্য

 

বিষয়

কোর্ট ফি

 

 

 

 

 

 

(ক) আবেদন পত্র

২০.০০ টাকা

(খ) নকল (শব্দ)

 

* ১ হতে ৩৬০

২.৫০

* ৩৬১ হতে ৭২০

৫.০০

* ৭২১ হতে ১০৮১

৭.৫০

* ১০৮২ হতে ১৪৪০

১০.০০

* ১৪৪১ হতে ১৮০০

১২.৫০

* ১৮০১ হতে ২১৬০

১৫.০০

* ২১৬১ হতে ২৫২০

১৭.৫০

* ২৫২১ হতে ২৮৮০

২০.০০

স্তরের নাম

 সেবার ধরণ, বিবরণ ও ভূমি মালিকের করণীয়

সেবা প্রদানে নিয়োজিত কর্মকর্তা/কর্মচারী

ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল ও আপীলেট ট্রাইব্যুনাল

 মৌজা রেকর্ড চুড়ান্ত প্রকাশনা সংক্রান্ত গেজেট বিজ্ঞত্তি প্রকাশের ১ বছরের মধ্যে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল / দেওয়ানী আদালতের প্রতিকার প্রার্থনা করা যাবে। ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইবুনালে প্রতিকার না পেলে মহামান্য হাইকোর্টে আপীল করতে পারেন।

 

         

 

জরুরী জ্ঞাতব্যঃ

০ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের  রেকর্ড ও নক্সা প্রনয়নের কাজ সম্পূর্ণ সত্মরভিত্তিক।

০নির্ভূল  রেকর্ড প্রনয়নের স্বার্থে বিভন্ন স্তরে পৃথক কর্মকর্তা/ কর্মচারী নিয়োজিত থাকেন।

০মাঠ পর্চা সরকারী ভাবে বুঝারত-কাম-তসদিক স্তরে বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়। বিবাদ, আপত্তি ও আপীলের রায়ে রেকর্ড সংশোধন হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা নিজ স্বাক্ষরে সংশোধিত পর্চা বিনামুল্যে সরবরাহ করবেন।

০উপজেলা/ সেটেলমেন্ট অফিসের রেকর্ড রুম থেকে আপত্তি ও আপীলের রায়ের জাবেদা নকল পর্চার কপি সরবরাহ করা হয়।

০জরিপ চলাকালীন বদর ফি, খতিয়ান ও নক্সার মূল্য ডিসি আর এর মাধ্যমে গ্রহণ করা হয়। ডিসিআর বহির্ভূত সকল লেনদেন নিষিদ্ধ এবং সুনিশ্চিত দূর্নীতির পর্যায়ভূক্ত। এরুপ অবৈধ লেনদেনের ক্ষেত্রে তাৎক্ষনিকভাবে কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

০জরিপ কার্যক্রম বিষয়ে কোন অভিযোগ থাকলে নিন্মবর্ণিত ক্রমানুযায়ী অভিযোগ করা যাবে।

 

 

যে কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ

যার কাছে অভিযোগ করতে হবে

সংশ্লিষ্ট উপজেলা অফিসের কর্মচারী

সংশ্লিষ্ট সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের কর্মচারী

সদর সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার, জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

উপরে বর্ণিত হয়নি সব কর্মকর্তা

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার

 

 

 

সেটেলমেন্ট অফিস/ জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসে

নিন্মলিখিত ঠিকানা ও ফোন নম্বরে যোগাযোগ করা যাবেঃ

অফিসের নাম

অফিসের অবস্থান

জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসারের ও সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসারের ফোন নং / মোবাইল নং

 জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস

বগুড়া

মালতিনগর, বক্সিবাজার মোড়

০৫১-৭৮৭০০

 সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস,বগুড়া সদর,বগুড়া

মালতিনগর, মাটির মসজিদ

 ০১৭১৮-৮৪০৩৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

গাবতলী, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১১-১৯৩২১৪

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

 সোনাতলা, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮৮৪০৩৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

শিবগঞ্জ, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮৮৪০৩৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

সারিয়াকান্দি, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১২-৮৩৯৭৫১

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

 কাহালু, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১০-৮৭০৯০২

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

দুপচাঁচিয়া, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১২-৯০৯৪৭৮

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

আদমদীঘি, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭২০-৬১৯৩৬৫

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

নন্দীগ্রাম, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

০১৭১৮-১৩৮৮৫৫

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস শেরপুর, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১১-০০২৯১৮

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

ধুনট, বগুড়া

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮-১৩৮৮৫৫

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

জয়পুরহাট সদর, জয়পুরহাট

 

 ০১৭১৭৭২০৮৮৮

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

ক্ষেতলাল, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১২-৫০৬০৮৩

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

পাঁচবিবি, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

 ০১৭১৮-৮২৫৯৫৭

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

কালাই, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

০১৭২৬-৭২৬৮৮০

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিস

আক্কেলপুর, জয়পুরহাট

উপজেলা পরিষদ, কোর্ট বিল্ডিং

০১৭৩১-৮৪৬২৬৫

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)